বৈশ্বিক জ্বালানি সংকট নিরসনে প্রস্তুত হ‘চ্ছে বাংলাদেশ : জয়

রওশন ঝুনু, ঢাকা: বৈশ্বিক জ্বালানি সংকট নিরসনে বাংলাদেশ প্রস্তুত হ‘চ্ছে ব’লে জানালেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ থেকে এক ভিডিও ক্লিপে এ তথ্য উপস্থাপন করেন তিনি।

ফেসবুক পোস্টে জানানো হয়, গত কয়েক সপ্তাহ ধ’রে জ্বালানি স্বল্পতার বিপর্যয়ের খাদে পা দিয়েছে বিশ্ব। আগস্টের নিম্ন দর থেকে অপরিশোধিত জ্বালানির প্রধান সূচকগুলোতে ব্যারেল প্রতি মূল্য এখন ২৫ শতাংশ বেশি। এশিয়ায় সর্বকালের সর্বোচ্চ অবস্থানে পৌঁছানোর পথে প্রাকৃতিক গ্যাসের দর। মহাদেশটির বিশাল সব তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রর জন্য কয়লার অভাবও এর জন্য দায়ী। ফলে, কমাতে হয়েছে বিদ্যুৎ উৎপাদন। অনেক এলাকা যে কারণে থেকে থেকেই লোডশেডিংয়ের কবলে পড়ে। বিশ্ব বাজারে যখন জ্বালানি তেলের দাম কমে আসছে তখনই এশিয়ার ক্রেতাদের জন্য তেলের দাম রেকর্ড পরিমাণ বাড়িয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম তেল রফতানিকারক দেশ সৌদি আরব।

এ সময় প্রশ্ন রাখা হয়, লোডশেডিং শুধু কি বাংলাদেশে? শীত তীব্র হলে চারদিন পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকতে পারে যুক্তরাজ্যে। এ ছাড়াও লন্ডনের ৪০ বছরের ইতিহাসে জ্বালানির মূল্য বেড়েছে সর্বোচ্চ ৯ শতাংশ। জ্বালানি সংকটের কারণে খোদ যুক্তরাষ্ট্রে মোবাইলে এসএমসের মাধ্যমে জনগণকে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করার আহ্বান জানানো হচ্ছে। বিদ্যুৎ সংকটের আশঙ্কায় জাপান এবং ফ্রান্সেও জনগণের প্রতি একই আহ্বান জানানো হয়েছে।
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর জার্মানিতে কখনো বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়নি। সেখানে এর সাশ্রয়ের জন্য বলা হয়েছে এবং অনেক শহরে পানি গরম করার বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার নিউসাউথ ওয়েলস ও সিডনিতে দুই ঘণ্টা করে লোডশেডিং করা হচ্ছে। আর ৬ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিদ্যুৎ সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে ভারত।

নতুন ঘোষণা অনুযায়ী চলুন দেখে নিই রাশিয়া-ইউক্রেন সংকটের কারণে বিশ্বব্যাপী লাগামহীন জ্বালানি তেলের তুলনামূলক চিত্র- বাংলাদেশে প্রতি লিটার ডিজেলের মূল্য ১১৪ টাকা, পেট্রোল ১৩০ টাকা। ভারতে প্রতি লিটার ডিজেলের মূল্য ১১২.৬৭ টাকা এবং পেট্রোল ১২৫.৬২ টাকা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি লিটার ডিজেলের মূল্য ১২৯.১৪ টাকা এবং পেট্রোল ১১২.২৯ টাকা। যুক্তরাজ্যে প্রতি লিটার ডিজেলের মূল্য ২২৫.০৬ টাকা এবং পেট্রোল ২১৩.১৭ টাকা। সিঙ্গাপুরে প্রতি লিটার ডিজেলের মূল্য ১৯২.৪২ টাকা এবং পেট্রোল ১৯২.৯৯ টাকা। জার্মানিতে প্রতি লিটার ডিজেলের মূল্য ১৮৮.৩৩ টাকা এবং পেট্রোল ১৬৯.২০ টাকা। অস্ট্রেলিয়ায় প্রতি লিটার ডিজেলের মূল্য ১৪৬.২৭ টাকা এবং পেট্রোল ১২১.৫২ টাকা।

পৃথিবীতে যে পরিমাণ জীবাশ্ম জ্বালানি সঞ্চিত হয়েছে তা দিয়ে বড়জোর আর ১শ’ বছর চলবে। ভবিষ্যৎ জ্বালানির নিরাপত্তায় বড় সহায়ক হবে সৌরশক্তি। বাংলাদেশ সারা দেশে ব্যাপকভাবে সৌরশক্তি উৎপাদনের পরিকল্পনা করছে। সময় যত গড়াবে ততোই সৌর বিদ্যুতের দাম কমে আসবে। শুরুতে সরকার ২০ টাকায় প্রতি ইউনিট সৌর বিদ্যুৎ কেনার চুক্তি করলেও এখন তা নেমেছে ১০ টাকার ঘরে।

আগামীর সমৃদ্ধ ও টেঁকসই বাংলাদেশ গড়ার জন্য নতুন সরকারের কাছে এখন একমাত্র চ্যালেঞ্জ হচ্ছে জ্বালানির নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। বিশেষজ্ঞদের মতে, ভবিষ্যতে বিশ্বের শীর্ষ ১১টি অর্থনীতির দেশের মধ্যে বাংলাদেশ একটি হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

SuperWebTricks Loading...
Headlines