কফি হাউজ এর ১৬ বছর পূর্তি’র মিলন মেলা

রওশন ঝুনু, ঢাকা : কফি হাউজের ১৬ বছর পূর্তিতে বন্দু-স্বজনদের অকৃত্রিম ভালবাসা ও শুভেচ্ছা বিনিময়ের মিলন মেলা বসেছিলো জাতীয় প্রেসক্লাবের তৃতীয় তলায়  আব্দুস সালাম মিলনায়তনে।

বুধবার ২৪ শে আগস্ট ২০২ ২ বিকেল পাঁচটায় শুরু হ’য়ে রাত ন’টা পর্যন্ত চলে জমজমাট এই প্রাণের আড্ডা। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণের কফি হাউজ এর কর্ণধার  খন্দকার শাহ আলম ছিলেন এই আড্ডার আয়োজক।

বিগত ১৬ বছর ধ’রে সংস্কৃতি অঙ্গনের যে বন্ধু স্বজনেরা নিয়মিত কফি হাউজে আড্ডায় মিলিত হতো, তারাই উপস্থিত হয়েছিলেন আজকের এই মিলন মেলায়। আর যাঁরা হারিয়ে গেছেন চিরতরে, তাঁদের নামের তালিকা উপস্থাপন ক’রে, শ্রদ্ধাভ’রে স্মরণ ও আত্মার শান্তি প্রার্থনা করা হয়, অনুষ্ঠানের শুরুতে। এই পর্বটির উপস্থাপন করেন, নাট্যজন আব্দুল আজিজ।

আনন্দমুখর এ আড্ডায় ছিলো, স্মৃতিচারণ, গল্প, কুশল বিনিময় এবং মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এ ছাড়া চা-কফি পিঠা, সিংগারার আপ্যায়ন ছিলো অনুষ্ঠানের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত। চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব, নাট্যজন, কবি সাহিত্যিক, আবৃত্তিকার, গীতিকার, কণ্ঠশিল্পী, বুদ্ধিজীবী, আইনজীবী, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, সাংবাদিকবন্ধুসহ সাংস্কৃতিক জগতের সকল স্বজন মিলিত হয়েছিলো এই প্রাণের আড্ডায়।

খন্দকার শাহ আলমের স্বাগত বক্তব্যের পর, তার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, গীতিকার ও কলামিস্ট শহীদুল্লাহ্ ফরায়জী, নাট্যজন নরেশ ভূঁইয়া, চলচ্চিত্র পরিচালক চটকু আহমেদ, নাট্যজন ও সাংবাদিক কাজী রফিক, সাংবাদিক আবু জাফর সূর্য, এ্যাডভোকেট ফজলুর রহমান খান, গোলাম শফিক, কবি লিলি হক, আ মা ম হাসানুজ্জামান, নাসিম আহমেদ, কামাল বায়েজিদ, রফিকুল্লাহ সেলিম, তপন হাফিজ প্রমুখ।

আলোচনায় বক্তারা বিগত ১৬ বছরের আনন্দ-বেদনা, সুখ-দুঃখ, ঘাত-প্রতিঘাতের স্মৃতিকথা তুলে ধরেন। বক্তারা বলেন, রাজধানী ঢাকার কোথাও এখন আর সুস্থ, বিশুদ্ধ, প্রাণখোলা আড্ডার জায়গা নেই। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর ভেতরের এই কফি হাউজ অঙ্গনটিও আজ নানান জটিলতায় জর্জরিত। হারাতে বসেছে তার সকল জৌলুস ও স্বকিয়তা। কফি হাউজের এই আড্ডা চত্নরটি পুনরায় বিনোদন মুখর ও প্রাণচাঞ্চল্যে আলোকিত হয়ে উঠবে, এই লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন বক্তারা।

বিগত ১৬ বছরে কফি হাউজ যাঁদেরকে হারিয়েছে, তাঁরা হলেন, নায়ক আমিনুল হক, অধ্যাপক মমতাজ উদদীন আহমদ, সৈয়দ শামসুল হক, ড. এনামুল হক, কামাল লোহানী, ওসমান শওকত বাবু, এটিএম শামসুজ্জামান, হাবিব আহসান, অমল বোস, সাদেক বাচ্চু, আব্দুর রাতিন, কাজী আলমগীর, মো. মুসা, শর্মিলী আহমেদ, আব্দুল কাদের, কে এস ফিরোজ, আলী যাকের, আনিসুর রহমান আনিস, কবি আবু আলম, ড. সেলিম আলদীন, রাফিজা খানম ঝুনু, মীর শিবলী সাদিক, সমুদ্র গুপ্ত, ডা. ক্যাপ্টেন সাঈদ, গোলাম হাবিবুর রহমান মধু, মান্নান হীরা, এস এম মহসীন, সিরাজ হায়দার, অধ্যাপক আফসার আহমেদ, সফিউল আলম রাজা, সুবির নন্দী, ফকির আলমগীর, হাসান আরিফ, মাহমুদ সাজ্জাদ, স ম আজিজুর রহমান, রবিউল ইসলাম বাবু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মুন্না, হুমায়ুন ফরীদি, বদিউজ্জামান খান, ফরিদউদ্দীন নিরোদ, মোজাম্মেল হোসেন বাচ্চু, আব্দুর রহমান মন্টু, ফেরদৌসী আহমেদ লিনা, ফজলুল করিম, আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল, এস এম নাসির উদ্দিন, ইশরাত নিশাত, জানে আলম এবং বারী সিদ্দিকী।

আলোচনা পর্ব শেষে শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন, আমিরুন নুজহাত মনিষা, ফকির সাহাবুদ্দীন, মৌসুমী ইকবাল, শিল্পী বিশ্বাস!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

SuperWebTricks Loading...
Headlines