আউড়ি’র নবযাত্রা : নারী উদ্যোক্তা ও বিশিষ্টজনদের মিলনমেলা

রওশন ঝুনু, ঢাকা: একশনএইড বাংলাদেশ এর সামাজিক উদ্যোগ ‘আউড়ি’র নতুন আউটলেটের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ১ জুন ২০২২ইং  তৃণমূল পর্যায়ের নারী কৃষক থেকে শুরু করে বাংলাদেশের জনপ্রিয় সেলিব্রিটিদের এক আড্ডা ও মিলনমেলার আয়োজন করা

মেলায় ফিতা কেটে আউড়’র নতুন আউটলেট- বাড়ি-১৯, রোড-১২৮, গুলশান-১ এর শুভ উদ্বোধন করা হয়।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, একশনএইড বাংলাদেশ এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ্ কবির, জয়িতা ফাউন্ডেশন এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফরোজা খান; বিশিষ্ট অভিনেতা আফজাল হোসেন, ডিজাইনার ও চিত্রশিল্পী অধ্যাপক চন্দ্র শেখর সাহা, উদ্যোক্তা সঙ্গীতা খান, অভিনেতা ও সাংবাদিক সুমন পাটোয়ারী, শিল্প প্রবর্তক, সেলিব্রিটি রন্ধনশিল্পী নাহিদ ওসমান, মাসিক উন্মাদ ম্যাগাজিন এর সহকারী সম্পাদক, কার্টুনিস্ট মোর্শেদ মিশু, অনলাইন মার্কেটপ্লেস ‘দেশ এর প্রতিষ্ঠাতা মরিয়ম জাভেদ। অনুষ্ঠানে একশনএইড ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ সোসাইটি’র বোর্ড সদস্য এম নাসিমুল হাই ও আনোয়ারা আনান আমানও যোগ দেন।

এর পরই অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিরা আউটলেটটি ঘুরে দেখেন এবং আউড়ির সাথে যুক্ত নারী কৃষক এবং ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের সাথে আলোচনা ও মত বিনিময় করেন। আগত অতিথি ও দর্শকরা আউড়িতে সরাসরি কারিগরদের সাথে সাক্ষাৎ করতে পেরে এবং উৎপাদিত পণ্যের গুণগত মান পরিদর্শন করে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

একই সাথে কারুশিল্প এবং চিত্রকলার উপর কর্মশালা এবং একশনএইড বাংলাদেশ এর আরেকটি উদ্যোগ ‘হ্যাপী হোম এর মেয়েদের দ্বারা পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। একশনএইড বাংলাদেশ এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ্ কবির এর সঞ্চালনায় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, প্রান্তিক পর্যায় নারী উদ্যোক্তাবৃন্দ এবং জাতীয় পর্যায়ের একাধীক তারকাশিল্পী ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

 একশনএইড বাংলাদেশ এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ্ কবির বলেন, “দেশ জুড়ে অনেক নারী উদ্যোক্তা আছে কিন্তু তাদের জন্য পণ্য বিক্রির তেমন কোনো নির্ভরযোগ্য প্ল্যাটফর্ম ছিলো না। আউড়ি তাদেরকে এই সুযোগ করে দিয়েছে”।

অভিনেতা,  আফজাল হোসেন বলেন, “ সাধারণ মানুষের ভেতরে অসাধারণত্ব রয়েছে। মানুষ মাত্রই স্বপ্ন থাকে এবং যার স্বপ্ন থাকে, তার চেষ্টাও থাকে। শুধু যেটা থাকে না সেটা হচ্ছে একা এগিয়ে যাবার সাধ্য। সে সুযোগটা মানুষ যখন পায় তখন তারা নিজেকে নতুন করে আবিষ্কার করতে পারে । আউড়ির এই নবযাত্রা সেই সুযোগ সৃষ্টি করে দিয়েছে”।

আউড়ি, একশনএইড বাংলাদেশ ও মহিলা কৃষক সমিতির একটি যৌথ উদ্যোগ, যার লক্ষ্য হলো নারী কৃষক এবং ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের পণ্যের ন্যায্য মূল্য এবং বাজার নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে গ্রাহকদের সাথে সরাসরি সংযোগ স্থাপন করে দেয়া। আউড়ি জলবায়ু-সহিষ্ণু ও টেকসই কৃষি পদ্ধতি ব্যবহার করে উৎপাদিত প্রাকৃতিক খাদ্য এবং কৃষি-ভিত্তিক পণ্য সরবরাহ করে থাকে। এতে বিস্তৃত পরিসরে আরও রয়েছে হস্তশিল্প এবং বুটিকের সংগ্রহ। এছাড়াও একটি ক্যাফে আছে যেখানে বিভিন্ন প্রকার খাদ্য বিক্রি হয়।

২০১৯ সালের ১১ এপ্রিল , নারীদের অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করার দীর্ঘমেয়াদী উদ্দেশ্য নিয়ে একশনএইড বাংলাদেশ এর প্রকল্প ‘প্রমোটিং অপরচুনিটিস ফর উইমেন্স এমপাওয়ারমেন্ট অ্যান্ড রাইটস’ (পাওয়ার) এর অংশ হিসেবে যাত্রা শুরু করে আউড়ি। বর্তমানে আউড়ি তৃণমূল নারী কৃষক এবং উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্যের বিপণন, ন্যায্যমূল্য, প্রক্রিয়াজাতকরণ, পরিবহন, ব্যবসা উন্নয়ন, সম্ভাব্য ক্রেতাদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করে দেয়ার কাজ করছে।  পাশাপশি তাদেরকে জৈব ও রাসায়নিক-কীটনাশকমুক্ত  পণ্য উৎপাদনে সহযোগিতা ও উৎসাহ প্রদান করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

SuperWebTricks Loading...
Headlines