স্মার্টফোন পাচ্ছে আণবিক বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণের ক্ষমতা

ডেস্ক নিউজ: মোবাইল চিপসেট জায়ান্ট কোয়ালকম এবং জার্মান প্রতিষ্ঠান ট্রিনামিক্স যৌথভাবে এবার স্মার্টফোনকে আণবিক বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণের ক্ষমতা দিতে যাচ্ছে। কোয়ালকম প্রসেসর চালিত স্মার্টফোনগুলোর জন্য ইনফ্রারেড সেন্সিং মডিউল তৈরি করছে বলে জানিয়েছে ট্রিনামিক্স। যা নিয়ার-ইনফ্রারেড স্কেকট্রোমিটার হিসেবে ব্যবহৃত হবে। এর মাধ্যমে স্মার্টফোনের সাহায্যেই আণবিক তথ্য পাওয়া যাবে।

স্মার্টফোন নির্মাতা কোম্পানিগুলো যদি এ ধরনের প্রযুক্তি সমর্থিত কোয়ালকম চিপসেটের ফোন বাজারে নিয়ে আসে, তাহলে ব্যবহারকারীরা তাদের ফোনের সাহায্যেই আণবিক তথ্য বিশ্লেষণ করতে পারবেন। যেমন স্মার্টফোন আপনার ত্বকে স্পর্শ করে জেনে নিতে পারবেন আপনার ত্বকের অবস্থা এখন কেমন এবং তাৎক্ষণিকভাবে ফোনের স্ক্রিনে দেখা যাবে-কোন ধরনের প্রসাধনী সামগ্রী আপনার জন্য উপযোগী।
কিংবা ধরা যাক সিল্কের কাপড় কিনবেন। কাপড়টি আসল নাকি নকল- তা যাচাই করে নিতে পারবেন এই প্রযুক্তির ফোনের মাধ্যমে। অথবা ধরা যাক, ফল বা অন্য কোনো খাবার খাবেন। সেই খাবারে কি পরিমাণ গ্লুকোজ/প্রোটিন/ফ্যাট/কার্বোহাইড্রেড রয়েছে তা পরিমাপ করতে পারবেন ফোনের মাধ্যমেই। পকেট থেকে ফোন বের করে খাবারের ওপর ক্যামেরা ধরলেই, স্ক্যান করে তাৎক্ষণিকভাবে জেনে নিন পারবেন পুষ্টিমান।
শরীরের ফ্যাট, ত্বকের ধরন, বিভিন্ন ধরনের প্লাস্টিকের গুণগতমান, খাবারে বিদ্যমান উপাদান পরিমাপসহ বেশ কিছু কাজে এ জাতীয় অ্যাপগুলো নতুন এই প্রযুক্তির ফোনে ব্যবহার করা যাবে। এ ধরনের ফোনকে বলা হচ্ছে, ট্রাইকর্ডার ফোন। ট্রিনামিক্সের একজন মুখপাত্র বলেন, ২০২১ সালের শেষের দিকে নতুন এই প্রযুক্তির কোয়ালকম চিপসেটের ফোন বাজারে আসতে পারে। তবে বিষয়টি স্মার্টফোন নির্মাতাদের ওপর নির্ভর করছে। যা হোক, ট্রিনামিস্কের বদৌলতে স্মার্টফোনে প্রথমবার আণবিক বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণ সুবিধা যুক্ত হতে যাচ্ছে, তা কিন্তু নয়। ২০১৭ সালে চ্যানহং নামক একটি চীনা প্রতিষ্ঠান সর্বপ্রথম স্পেকট্রোস্কোপিক সেন্সর প্রযুক্তির ট্রাইকর্ডার স্মার্টফোন বাজারে নিয়ে এসেছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

SuperWebTricks Loading...
Headlines